চিকিৎসকরা রাজনীতি করলে আমরা কী করবো: ফিরোজ রশীদ

ওয়ার্ল্ড বিডি নিউজ, ঢাকা : সারাদেশে বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ দিনে দিনে রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হচ্ছেন। এমনকি মানুষের জীবন বাঁচানোর মতো পেশার দায়িত্বে থেকেও রাজনীতিতে নাম লেখাচ্ছেন অনেকে। এজন্য চিকিৎসকসহ পেশাজীবীদের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদে মেডিকেল কলেজেস গভার্নিং বডিস রিপিল বিল-২০২১ বাছাই কমিটিতে পাঠানো ও বিলটির ওপর সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর আলোচনাকালে এই প্রশ্ন তোলেন তিনি।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, চিকিৎসা সেক্টরে বিএনপি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় ড্যাব চালু করেছে, আওয়ামী লীগ এসে স্বাচিপ চালু করলো। সেক্ষেত্রে আমরা কী কারণে বসে থাকছি? এই আইনের মধ্যে যদি উনি আনতো যে ডাক্তাররা এবং বৈজ্ঞানিকরা রাজনীতি করতে পারবে না তাহলে খুব খুশি হতাম। কিন্তু সেটা আনা হয়নি। ডাক্তাররা যদি এদেশে রাজনীতি করে তাহলে আমরা কী করবো? আমাদের কাজটা কী? ওনারা চলে আসুক রাজনীতি করতে। যারা ভালো ছাত্র তারা ডাক্তারি পড়ে, কিন্তু তারা যদি রাজনীতি করে তাহলে আমরা সেবা বঞ্চিত হচ্ছি।

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ এ সময় বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছরেও দেশের সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। যারা সরকারি হাসপাতালে কর্মরত তারাই আবার বেসরকারি হাসপাতালের ব্যবসা করছে।

হারুন অর রশীদ আরও বলেন, দেশে বেসরকারি মেডিকেল কলেজের সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে কিন্তু শিক্ষার গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। মেডিকেল কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে অনিয়ম-দুর্নীতি হয়েছে এই ব্যাপারে কী ব্যবস্থা নিয়েছেন?