শনাক্তের হার বেড়ে ২ শতাংশের ওপরে

ডাব্লিউ বিডি ডেস্ক: গত তিনদিন ধরে করোনাতে রোগী শনাক্তের দৈনিক হার দুই শতাংশের নিচে থাকলেও গত ২৪ ঘণ্টায় তা আবারও বেড়েছে। এসময়ে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাতজন।
আজ মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টা (১৮ অক্টোবর সকাল ৮টা থেকে ১৯ অক্টোবর সকাল ৮টা) পর্যন্ত করোনাতে রোগী শনাক্তের হার দুই দশমিক ২০ শতাংশ।
এর আগে গত শনিবার চলতি বছরে প্রথম দিনের মতো দৈনিক শনাক্তের হার নেমে আসে দুই শতাংশের নিচে। তারপর থেকে গতকাল (১৮ অক্টোবর) পর্যন্ত শনাক্তের হার টানা তিনদিন ধরে দুই এর নিচেই ছিল।
স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৪৬৯ জন আর গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাতজন।

তাদের নিয়ে দেশে সরকারি হিসেবে করোনাতে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৬৬ হাজার ২৯৬ জন আর মারা গেলেন ২৭ হাজার ৭৮৫ জন।
করোনাতে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৯৭ জন, তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠলেন মোট ১৫ লাখ ২৯ হাজার ৬৮ জন।
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২১ হাজার ৫৫৯টি আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২১ হাজার ৩০৮টি।
দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এক কোটি এক লাখ ৩৫ হাজার ৪২টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৭৪ লাখ ১১ হাজার ৮৫২টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ২৭ লাখ ২৩ হাজার ১৯০টি।

দেশে এখন পর্যন্ত করোনাতে রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৪৫ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬২ শতাংশ আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।
গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া সাতজনের মধ্যে পুরুষ পাঁচজন আর নারী দুইজন।
দেশে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৭৯৮ জন আর নারী মারা গেলেন ৯ হাজার ৯৮৭ জন।
তাদের মধ্যে বয়স বিবেচনায় ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে রয়েছেন দুইজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে একজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে একজন আর ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে রয়েছেন দুইজন। আর এই সাতজনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন তিনজন, চট্টগ্রাম বিভাগের দুইজন আর খুলনা ও রংপুর বিভাগের আছেন একজন করে।
স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, মারা যাওয়া সাতজনের মধ্যে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে সরকারি হাসপাতালে আর একজন মারা গেছেন বেসরকারি হাসপাতালে। (সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন)

জেএ/ডাব্লিউ বিডি নিউজ