দীপিকা পাড়ুকোনকে না করতে পারিনি: তাহসান

ঢাকা : একজন তারকার কত গুণ থাকতে পারে? দেশের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খানকে দেখলে এই প্রশ্নের উত্তরটি সহজ হয়ে যায়। গায়ক, অভিনেতা তকমার পাশাপাশি তিনি একজন শিক্ষক, উপস্থাপক ও সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিচারক। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তার অর্জনের পাল্লা বেশ ভারী। শোবিজ অঙ্গনে সাড়া ফেলার পাশাপাশি চাকরি জীবনেও দেখিয়েছেন দক্ষতা।

সম্প্রতি ‘বড় মঞ্চের তারকা’ নামক অনুষ্ঠানের অতিথি হয়ে এসেছিলেন তাহসান খান। অনুষ্ঠানটির উপস্থাপিকার ভূমিকায় ছিলেন ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের সাড়া জাগানো অভিনেত্রী দিলারা হানিফ পূর্ণিমা। সেখানে তাহসানের সঙ্গে নানা বিষয়ে কথা হয় পূর্ণিমার।

পূর্ণিমার প্রশ্ন- শিক্ষকতা, গান, অভিনয়, উপস্থাপনা, সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিচারকাজ কী না করেছেন তাহসান খান। একটা মানুষের এত প্রতিভা কেন থাকতে হবে? তাহলে নাচটা বাদ যাবে কেন?

উত্তরে তাহসান খান লজ্জা পেয়ে বলেন, ‘এই একটা জায়গায় আমি একেবারেই কাঁচা।’ তৎক্ষণাৎ পূর্ণিমার প্রশ্ন, তাহলে দীপিকার সঙ্গে নাচতে হলো কেন? তাহসানও কম যান না। তার ভাষ্য, ‘দীপিকা পাড়ুকোন এমনভাবে অনুরোধ করেছিল, না করতে পারিনি। যে কারণে আমার করতে হয়েছিলো। এছাড়া ওই শো-তে আমরা মানুষকে আনন্দ দিচ্ছিলাম। তাই করতে হয়েছে।’

মূলত এ প্রশ্ন করে ২০১৫ সালে লাক্সের আয়োজনের সেই স্মৃতিকে সামনে আনলেন পূর্ণিমা। সেবার বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন ঢাকায় এলে সেই অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন তাহসান খান। সেই মঞ্চে দীপিকার সঙ্গে একটা গানে কিছুক্ষণ নাচও পরিবেশন করেন তিনি। তাদের নাচের দৃশ্য এখনো অনেক দর্শকের মনে গেঁথে আছে।

বেশ কিছু বড় অনুষ্ঠানে উপস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেছেন তাহসান। উপস্থাপক তাহসানকে কত নম্বর দেবেন? পূর্ণিমার এ প্রশ্নের জবাবে তাহসান বলেন, ‘আমি অনেক বছর শিক্ষকতা করেছি। যখন অনেক মানুষ সামনে বসে থাকে আর আমার কথা বলতে হয়, তখন আমি খুব শিক্ষকসুলভ কথা বলি। নিজেকে গায়ক ও নায়ক হিসেবে যত নম্বর দেব, উপস্থাপক হিসেবে তত দেব না। কারণ আমি উপস্থাপনা করতে গেলেও শিক্ষকতা শুরু করি, লেকচার দিতে শুরু করি। আমার উপস্থাপনায় মানুষ বিনোদন পায় না, লেকচার বেশি শুনতে হয়।’